অনুরাগের বিরুদ্ধে যৌন হেনস্তার অভিযোগ

বলিউড পরিচালক অনুরাগের বিরুদ্ধে যৌন হেনস্তার অভিযোগ তুলেছেন বাঙালি অভিনেত্রী পায়েল ঘোষ

allegations-of-sexual-harassment-against-anurag

বলিউড পরিচালক অনুরাগ কাশ্যপের বিরুদ্ধে যৌন হেনস্তার অভিযোগ তুলেছেন বাঙালি অভিনেত্রী পায়েল ঘোষ। তিনি অভিযোগটি ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এবং তার দপ্তরের টুইটার অ্যাকাউন্ট পিএম ইন্ডিয়াকে ট্যাগ করে অনুরাগের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ারও অনুরোধ জানিয়েছেন।

শনিবার পায়েল তার টুইটারে লেখেন,অনুরাগ কাশ্যপ আমার উপর বলপ্রয়োগ করেন এবং ভীষণই খারাপ ভাবে।’ এর পরের অংশে প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশে তিনি লেখেন, ‘নরেন্দ্র মোদিজি দয়া করে ব্যবস্থা নিন এবং একজন সৃজনশীল মানুষের আড়ালে কোন দৈত্য রয়েছে, সেটা গোটা দেশকে দেখতে দিন।’

টুইটারের শেষ অংশে পায়েল লিখেছেন, ‘আমি জানি এতে আমার ক্ষতি হবে। আমার নিরাপত্তাও ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে উঠবে। দয়া করে আমাকে সাহায্য করুন।’

প্রধানমন্ত্রীর দফতর বা প্রধানমন্ত্রী নিজে এই টুইটের এখনও পর্যন্ত কোনও জবাব দেননি। তবে জাতীয় মহিলা সুরক্ষা কমিশনের চেয়ার পার্সন রেখা গোস্বামী তার কিছু ক্ষণ পরেই একটি টুইট করেন পায়েলকে ট্যাগ করে। সেখানে তিনি লেখেন, ‘‘আপনি মহিলা সুরক্ষা কমিশনের চেয়ারপার্সনের কাছে অভিযোগ জানাতে পারেন। কমিশন বিষয়টি দেখবে।’’

যাঁকে নিয়ে সম্প্রতি বলিউড আলোচনা তুঙ্গে, সেই কঙ্গনা রানাউতও চুপ করে বসে থাকেননি পায়েলের অভিযোগ-টুইট দেখে। প্রায় সঙ্গে সঙ্গেই তিনি লিখেছেন, ‘সকলের কথাই গুরুত্বপূর্ণ’।

এর পর তিনি #মিটু এবং #অ্যারেস্টঅনুরাগকাশ্যপ জুড়ে দিয়েছেন। এই কঙ্গনাকেই অনুরাগ লিখেছিলেন, ‘পারলে আপনি চিনের বিরুদ্ধে লড়ুন।’ সেই অনুরাগের বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠতেই হাত গুটিয়ে থাকবেন কঙ্গনা, এমনটাও কেউ ভাবেননি।

ইতিমধ্যেই কঙ্গনা কংগ্রেসের প্রাক্তন নেত্রী এবং অভিনেত্রী ঊর্মিলা মাতন্ডকরের উদ্দেশেও তোপ দেগেছেন। বলেছিলেন, ‘‘ঊর্মিলা বিখ্যাত হয়েছেন সফট পর্নে অভিনয় করে।’’পাশাপাশি, পায়েলের টুইট প্রকাশ্যে আসার পর বলিউডের একাংশও অনুরাগের বিরুদ্ধে সরব হয়েছে। কঙ্গনার পাশাপাশি তারাও অনুরাগের গ্রেপ্তার দাবি করেছেন।

এমনিতে পরিচালক অনুরাগ কাশ্যপ ঘোষিত ভাবেই মোদি-বিরোধী। প্রকাশ্যেই তিনি মোদি সরকার এবং বিজেপির নানা সমালোচনা করেন। এর আগে তার পুরনো প্রযোজনা সংস্থা ‘ফ্যান্টম ফিল্ম’-এর এক সহযোগীর বিরুদ্ধে যৌন হেনস্তার অভিযোগ উঠেছিল। পরে সেই সংস্থা বন্ধ নিতে বাধ্য হন অনুরাগ। এর পেছনে তিনি বলিউডের রাজনীতিকে দায়ী করেছিলেন।

সম্প্রতি আবার অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতের অস্বাভাবিক মৃত্যু নিয়েও অনুরাগ বিভিন্ন ভাবে তার মত প্রকাশ করেছেন। যা কেন্দ্রের শাসক দল বিজেপিকে খুব একটা স্বস্তিতে রাখেনি। সেই অনুরাগের বিরুদ্ধে যৌন হেনস্থার অভিযোগ ওঠায় এবারও বলিউডের একাংশ ‘রাজনীতি’রই গন্ধ পাচ্ছেন।

তবে টুইটারে অভিযোগ জানিয়ে প্রধানমন্ত্রীর কাছে ব্যবস্থা নেয়ার আর্জি জানালেও পায়েল পুলিশের কাছে অনুরাগের বিরুদ্ধে কোনো অভিযোগ দায়ের করেছেন কি না, তা যদিও এখনও স্পষ্ট নয়। অনুরাগও এখনও পর্যন্ত বিষয়টি নিয়ে মুখ খোলেননি।