প্রাথমিক রিপোর্টে ষড়যন্ত্রের কথা উল্লেখই করল না মুখ্যমন্ত্রীর প্রশাসন !

প্রাথমিক রিপোর্টে ষড়যন্ত্রের কথা উল্লেখই করল না মুখ্যমন্ত্রীর প্রশাসন !

প্রাথমিক রিপোর্টে ষড়যন্ত্রের কথা উল্লেখই করল না মুখ্যমন্ত্রীর প্রশাসন !

প্রাথমিক রিপোর্টে ষড়যন্ত্রের কথা উল্লেখই করল না মুখ্যমন্ত্রীর প্রশাসন !
প্রাথমিক রিপোর্টে ষড়যন্ত্রের কথা উল্লেখই করল না মুখ্যমন্ত্রীর প্রশাসন !

তৃণমূল সুপ্রিমো গতকাল সন্ধ্যে ৬টা নাগাদ আক্রান্ত হয়েই ষড়যন্ত্রের কথা উল্লেখ করেছিলেন। বলেছিলেন, ওনাকে পিছন দিক থেকে চার-পাঁচজন মিলে ধাক্কা দিয়েছিল।

কিন্তু মুখ্যমন্ত্রীর প্রশাসন প্রাথমিক তদন্তে ওনার দাবি নস্যাৎ করল। প্রশাসনের প্রাথমিক তদন্তের রিপোর্টে ষড়যন্ত্রের কোনও উল্লেখই নেই।

গতকাল নন্দীগ্রামে আক্রান্ত হন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। শাসক দল তৃণমূল এবং স্বয়ং দলনেত্রীর তরফ থেকে এই ঘটনাকে ষড়যন্ত্র বলে আখ্যা দেওয়া হয়েছে। কিন্তু অবাক করা বিষয় হল, প্রাথমিক তদন্তের রিপোর্টে কোনও ষড়যন্ত্রের কথা উল্লেখ করা হয়নি প্রশাসনের তরফ থেকে। আজ নবান্নে প্রাথমিক তদন্তের রিপোর্ট জমা পড়েছে। সেই রিপোর্টে কোনও ষড়যন্ত্রের উল্লেখ নেই।

গতকালই স্বরাষ্ট্র দফতর জেলা প্রশাসনের কাছে রিপোর্ট তলব করেছিল। এরপরই প্রশাসনের তরফ থেকে প্রত্যক্ষদর্শীদের বয়ান নেওয়া হয়। যেখানে একাধিক মানুষ দাবি করেন যে, মুখ্যমন্ত্রীকে কেউ ঠেলা দেননি। ওনার গাড়ির দরজা একটি পিলারে গিয়ে ধাক্কা মারে, আর তাঁর ফলে মুখ্যমন্ত্রী আহত হন। প্রশাসনের রিপোর্টে প্রত্যক্ষদর্শীদের বয়ানের কথা উল্লেখ আছে।

কিন্তু সেই রিপোর্টে কোনও ষড়যন্ত্রের উল্লেখ নেই। তবে এটি প্রারথমিক রিপোর্ট মাত্র, এখনও বিস্তারিত রিপোর্ট দিতে কিছু সময় লাগবে বলে জানিয়েছে পূর্ব মেদিনীপুর জেলা প্রশাসন।

গতকাল ঘটনা ঘটে যাওয়ার পর আজ সকালেই ঘটনাস্থলে যান পূর্ব মেদিনীপুর জেলার পুলিশ সুপারম ডিআইজি মেদিনীপুর এবং পূর্ব মেদিনীপুর জেলার জেলাশাসক। ওনারা সবাই প্রত্যক্ষদর্শীদের সঙ্গে কথা বলেন। ওনারা ঘটনার ছবি এবং ভিডিও সংগ্রহ করেছেন বলে জানা গিয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *